tanoreordinaryit.com https://www.tanoreordinaryit.com/2023/07/blog-post_29.html

কবুতরের রোগ ও ঔষধের নাম এ সম্পর্কে বিস্তারিত টিপস

সূচিপত্র:কবুতরের রোগ ও ঔষধের নাম এ সম্পর্কে বিস্তারিত টিপস 





*কবুতরের রোগ ও ঔষধের নাম

*কবুতরের খাবার দেওয়ার নিয়ম 

*কবুতরের ঠান্ডার ওষুধ

*কবুতরের পাতলা পায়খানার চিকিৎসা

*কবুতরের ভিটামিন ওষুধের নাম কি 

*কবুতরের পক্সের ওষুধ

*কবুতরের কৃমি ওষুধের নাম কি

*কবুতরের রুচির ওষুধ

*কবুতরের ঝিমানো রোগের ওষুধ


কবুতরের রোগ ও ঔষধের নাম: আপনি যদি বাসায় কবুতর পালন করে থাকেন তাহলে আপনাকে আগে কবুতরের রোগ সম্পর্কে জানতে হবে এবং কবুতরের রোগের ওষুধের সম্পর্কে জানতে হবে, কেননা এর সম্পর্কে যদি আপনার কোন ধারণা না থাকে, তাহলে যে কোন সময় আপনার পালিত কবুত রোগে আক্রান্ত হতে পারে, এজন্য কবিতর পালন করার আগে কবিতলের রোগ ও ওষুধের সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে,

কবুতরের রোগ সম্পর্কে বিস্তারিত

কবিতা সাধারণত বেশি রোগে আক্রান্ত হয় না কিন্তু কিছু রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে কলেরা বসন্ত রক্ত আমাশা নিউমোনিয়া এগুলো রোগে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকে,

আপনার কবুতর দেশি হোক আর বিদেশি হোক এরা নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে, কবিতর সাধারণত পানি বা খাদ্যের মধ্যে আক্রান্ত হয়ে থাকে, আর কবি তো সাধারণত বসন্ত রোগে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকে, 

কবিতর সাধারণত কলেরা রোগে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকে, কবুতরের কলেরা রোগ হলে বুঝবেন কিভাবে কলেরা রোগের লক্ষণ হচ্ছে কবুতরের পায়খানার সাথে সবুজ বা হলুদ ডায়রিয়া দেখা দেয় এবং শ্বাসকষ্ট অরুচি পানি পিপাসা বৃদ্ধি পায়.

কবুতরের ওষুধের সম্পর্কে আলোচনা: কবুতরের রোগ ও ওষুধের তালিকা দেওয়া হলো কবুতরের রোগ নির্ণয় না করতে পারলে আন্দাজে কোন ওষুধ প্রয়োগ করবেন না নিজে না পারলে বিশেষজ্ঞর পরামর্শ নিন

AD3E/ভিটামিন এডি থ্রি ও ই শারীরিক ক্ষমতা উর্বরতা বাড়াবে

Calplex/ক্যালসিয়াম

Lcturn /খাদ্যা লিভার টনিক হিসেবে ব্যবহৃত

Thiavin/ভিটামিন বি এক বি দুই তাল রোগের জন্য

wormazole/কৃমি ওষুধ

Rena-WS/মাল্টিভিটামিন

Respiron/ঠান্ডা ও শ্বাসতন্ত্রের প্রতিশোধক

Riboson/পক্স ও অন্যান্য ক্ষতি নিরমণে ব্যবহৃত

Lisovit/রোগ প্রতিরোধ হিসাবে ব্যবহৃত 

কবিতর আমাদের গৃহপালিত পশু তাই অবশ্যই কবিতরকে যেকোনো ওষুধ দেওয়ার আগে সেই ওষুধ সম্পর্কে জেনে বিস্তারিত পড়ে তারপরে প্রয়োগ করবেন তা না হলে আপনার কবুতর সুস্থ হওয়ার থেকে ক্ষতিগ্রস্তটা বেশি হবে তাই অবশ্যই সম্পর্কে আমাদের জানতে হবে.

কবুতরের খাবার দেওয়ার নিয়ম: কবিতরকে খাবার দেওয়ার আগে কবিতরকে খাবার দেওয়ার পাত্র ও তার পানি বিশুদ্ধ আছে কিনা সেটা আগে নিশ্চিত করতে হবে তারপর সেই পানি কবুতরকে পান করাবেন কারণ কবিতা তার খাবারের পানি বা খাবারের পাত্র থেকে জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে, নিচে সীমিত আকারে কবুতরের খাবারের তালিকা প্রদান করা হলো

কার্বোহাইড্রোজেন খাবার: গম ভুট্টা ধান চাল চেনা মিলেট জব ইত্যাদি খাদ্য তে কার্বো হাইড্রোজেন থাকে

প্লোটিং জাতীয় খাবার: মুসুরি মুগ রেজা সয়াবিন মটর এংকার ইত্যাদি এইসব খাবারে ৫০% থাকে


কবুতরের ঠান্ডার ওষুধ: কবুতরের ঠান্ডা বা সর্দি কাশি এমন একটি রোগ যার থেকে সকল রোগের সৃষ্টি হয়ে থাকে অর্থাৎ ঠান্ডা আবার সর্দি কাশি আমরা কবুতরের পায়ে সকল প্রকার রোগের পূর্বাভাস হিসেবে গ্রহণ করতে পারি কিন্তু এই চিকিৎসার পদ্ধতি খুবই সহজ অবশ্যই যে এর সম্পর্কে জানে তার জন্য এটা খুবই সহজ. নিচে কবুতরের ঠান্ডা জড়িত লক্ষণ গুলো নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো

* ঝিম মেরে বসে থাকা 

* সবুজ পায়খানা হওয়া

* মুখে লালা জমে থাকা

* দুর্বল হয়ে যাওয়া যাবে

তাহলে চলুন নিচে জেনে নেওয়া যাক এগুলোর সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা

কবুতরের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার আগে বুঝতে হবে যে রোগের গভীরতা রোগের গভীরতা নিশ্চিত করে তারপরে চিকিৎসা প্রদান করতে হবে কারণ কবিতরকে হাই পাওয়ারের অ্যান্টিডোমেটিক খাওয়ালে তাহলে হিতে বিপরীত হতে পারে তাই আগে কবিদেরকে মেডিসিন প্রয়োগ সম্পর্কে জানতে হবে.

কবুতরের ঠান্ডা জড়িত সমস্যার প্রাথমিক পর্যায়ের করণীয় উপাদান:

* গরম পানি

* মধু

* লেবু

* টক দই

কবুতরের ঠান্ডা জড়িত রোগ হলে তাদের শ্বাসকষ্ট হয়ে থাকে তাই মধু ব্যবহার করলে লিভার টনিক ও এলজিয়াম পর্যন্ত লাগে এই নিয়মগুলোর মাধ্যমে আপনার কবুতরের সুস্থতা নিশ্চিত করে.

*কবুতরের পাতলা পায়খানার চিকিৎসা: কবুতরের পাতলা পায়খানা হওয়ার কারণ হচ্ছে কবুতরের খাবার পাত্রের অপরিষ্কার থাকার কারণে হয়তো কবুতরের পাতলা পায়খানা হয়ে থাকে কবুতরের পাতলা পায়খানা হলে কবিতর মাঝে মাঝে পাতলা বা তরল পায়খানা করে করে এবং পায়খানার রং সবুজ রঙের হতে পারে এই রোগের মূল নাম হলো কলেরা কলেরা রোগ হল একটি মারাত্মক রোগ এই রোগ হলে ৪৫ ভাগ কবিতর মারা যায় কলেরা রোগ হলে সালফার ডগ ভালো কাজ করে আর কলেরা ভ্যাকসিন সব পানির সম্পদ হাঁসপাতালে পাবেন বছরে দুইবার ভ্যাক্সিনটি প্রয়োগ করবেন তাহলে দেখবেন আপনার কবুতরের রোগবালায় অনেক কমে গেছে.

*কবুতরের ভিটামিন ওষুধের নাম কি: এখন আমরা কথা বলব কবুতরের ভিটামিন খাওয়ানো নিয়ে শীতের শুরুতে ভিটামিন খাওয়ানো টা খুবই ভালো এতে করে কবুতরের রোগবালায় খুব কম হয় তাতে কবুতরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে যায় পাখি বা কবুতরের জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা কোন ভিটামিন আমাদের দেশে পাওয়া যায় না হাঁস মুরগির জন্য যে সকল ভিটামিন প্রয়োগ করে থাকে সেই ওষুধগুলোই কবিতর বা পশু পাখির জন্য ব্যবহার করা যাবে উপরে আমরা কবুতরের ওষুধ সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিয়েছি উপরে পড়লেই আপনারা কবিতরের ভিটামিন সম্পর্কে জানতে পারবেন.

*কবুতরের পক্স এর ওষুধ: গৃহপালিত পাখির মধ্যে অন্যতম একটি পাখি এমনই আমাদের দেশে কবুতর খামারও রয়েছে অনেক আর আমাদের দেশে অনেক লোক শখে কবুতর পালন করে থাকে আমরা সাধারণত বসন্ত রোগ বলে থাকি বসন্ত বর্তমানে বাংলাদেশে অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে পক্স বা গুটি বসন্ত রোগের কারণে অনেক খামারি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সাধারণত পক্স বা গুটি বসন্ত রোগটি শীতকালে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে ,

পক্স রোগের চিকিৎসা: পক্স রোগে আক্রান্ত হলে কবুতরকে সাথে সাথে আলাদা করে দিতে হবে এরপর কবুতরের যেসব স্থানে গঠিত হয়েছে সে স্থান নির্বাচন করে দিনে তিনবার করে এন্টি স্টিক লাগাতে হবে বা হলুদ ব্যবহার করতে পারেন.




*কবুতরের কৃমি ওষুধের নাম কি: কৃমি সংক্রান্ত কবুতরের অবস্থা ওপরে একটি নীতি প্রভাব পড়তে পারে কৃমির কারণে ওজন হাঁস পায় কৃমির কারণে কবুতরের ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়ে যদি সময় মত চিকিৎসা না করা হয় তাহলে কবুতরের মৃত্যু হতে পারে

*কিভাবে বুঝবেন আপনার কবুতরের কৃমি রোগ হয়েছে:

*কবুতর দুর্বল হয়ে পড়া

*অস্বাভাবিক পায়খানা করা

*বমি করা

*কবুতরের পায়খানায় কিরমি দেখতে পাওয়া

*সবুজ ডায়রিয়া হওয়া


অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া